মৌলভীবাজারে দিঘী থেকে অটোরিকশা চালকের লাশ উদ্ধার

তিন দিন নিখোঁজ থাকার পর সিএনজি অটোরিকশাচালক হোসেন মিয়ার (২২) লাশ মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১১নং মোস্তফাপুর ইউনিয়নের সুলতান দিঘী থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার বিকাল ৫টার দিকে মোস্তফাপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের বাউরঘড়িয়া সুলতান দিঘী থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

হোসেন মিয়া ব্রাম্মণবাড়িয়া জেলার সরইল এলাকার গাঘরাজুর গ্রামের লায়েছ মিয়ার ছেলে। তিনি বর্তমানে মৌলভীবাজার পৌর শহরের বড়হাট এলাকায় বসবাস করে আসছিল।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, দুপুরে স্থানীয় এলাকাবাসী দিঘীতে লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

মৌলভীবাজার মডেল থানার ওসি মো: ইয়াছিনুল বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ আগস্ট হোসেন মিয়া তার ভাড়াটিয়া বাসা হতে সন্ধ্যার দিকে সিএনজি অটোরিকশার মালিক সুমন আহম খিদুরের গ্যারেজে গাড়ি রাখার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন। রাত ৯টার দিকে তার মালিক সুমন সিএনজি অটোরিকশাচালককে ফোন দিলে তিনি জানান, কুসুমবাগ পয়েন্ট আছে। তারপর থেকে আর যোগাযোগ হয়নি। শুক্রবার সকাল ৭টা পর্যন্ত মোবাইলে রিং হয়, কিন্তু রিসিভ করেনি। এরপরে মোবাইলটি বন্ধ হয়ে যায়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.