জগন্নাথপুরে লোকবল ও অবকাঠামো সংকটে পরিবার পরিকল্পনা সেবা

অর্ধশতাধিক শূন্য পদ ও অবকাঠামো সংকট নিয়েই খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে পরিচালিত হচ্ছে সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার পরিবার পরিকল্পনা সেবা কার্যক্রম। ফলে সঠিক সেবা পাচ্ছে না প্রান্তিক জনগোষ্ঠী। বিপুল সংখ্যক পদ শূন্য ও পর্যাপ্ত অবকাঠামো না থাকায় পরিবার পরিকল্পনা সেবা কার্যক্রম যথাযথভাবে পরিচালনা করা সম্ভব হচ্ছে না বলে স্বীকার করেছে  কর্তৃপক্ষ।

জগন্নাথপুর উপজেলা পরিবার পরিবার পরিকল্পনা অফিসের তথ্য অনুযায়ী, জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরিবার পরিকল্পনা  বিভাগের  কার্যক্রম পরিচালনার জন্য মোট ৬টি কক্ষ রয়েছে। এর মধ্যে ১টি কক্ষে চলে মা, শিশু, পরিবার পরিকল্পনা ও সাধারণ রোগীর সেবার কাজ, ১টি কক্ষ ব্যবহার হয় স্টোর রুম হিসেবে, ১টি কক্ষে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়, ১ টি কক্ষ অপারেশন থিয়েটার , ১টি কক্ষ মেডিকেল অফিসার, এমসিএইচ এফপি এর জন্য বরাদ্দ। বাকী ১টি কক্ষে চলে দাপ্তরিক কার্যক্রম । মেডিকেল অফিসার এমসিএইচ এফপির জন্য বরাদ্দকৃত কক্ষটি প্রায় ১বছর আগে কোভিড-১৯ কাজে ব্যবহারের জন্য স্বাস্থ্যবিভাগ নেয় বর্তমানে কক্ষটিতে স্বাস্থ্য বিভাগ ঔষধের গুদাম হিসেবে ব্যবহার করছেন। উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয় হিসেবে যে রুম ব্যবহার করা হয় রুমটিতে সামান্য বৃষ্টি হলে পানি পড়ে। এই অবস্থায় পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা অফিসে বসা সম্ভব হয় না বলে জানাযায়।  ভবনের সংকটের কারনে বৃষ্টিতে নষ্ট হচ্ছে  উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়ের জন্য সরকারী বরাদ্দের প্রায় ২ লক্ষ টাকার আসবাপত্র ।  অপারেশন থিয়েটারের অবস্থা অত্যান্ত নাজুক। সরজমিনে অপরারেশন থিয়েটারে গেলে দেখা যায় ফ্লোরে বৃষ্টির পানি জমা হয়ে আছে। আসবাপত্র গুলো বৃষ্টিতে ভিজে একাকার হয়ে পড়ে আছে। যা অপারেশনের কাজে ব্যবহার করা মোটেই সম্ভব বলে মনে হচ্ছে না।

জগন্নাথপুর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগে মোট পদের সংখ্যা ৯৬টি। সহকারী উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ১ জন, মেডিকেল অফিসার, এমসিএইচ এফপি ১ জন, মেডিকেল অফিসার ক্লিনিক ১ জন, সহকারী পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ১ জন, উপ সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ১ জন,ফার্মাসিস্ট ৩ জন, পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা ৭ জন, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা  সহকারী ১ জন, অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রা: ১ জন, পরিবার কল্যাণ সহকারী ১৯ জন, অফিস সহায়ক/ নিরাপত্তা প্রহরি ৩ জন, দাইনার্স কাম নার্স ১ জন, আয়া ৬ জন সহ মোট  ৪৬ টি পদ শূন্য থাকায়  প্রায় সময় তিনজনের কাজ একজনকে করতে হচ্ছে।

জগন্নাথপুর উপজেলাা পরিবার পরিকল্পনা  কর্মকর্তা মো: একরামুল হক জানান, অবকাঠামো  এবং জনবল সংকটে পর্যাপ্ত সেবা দেওয়া যাচ্ছে না। তবে ভবন ও জনবল সংকট থাকলেও পর্যাপ্ত জন্মনিয়ন্ত্রণ উপকরণ ও ওষুধ রয়েছে । অবকাঠামো ও জনবল সংকটের সমস্যার কথা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে  লিখিতভাবে অবগত করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.