চলে গেলেন অভিনেতা সাদেক বাচ্চু

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অভিনেতা সাদেক বাচ্চু মারা গেছেন। আজ (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টা ৫ মিনিটে মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন এই শিল্পী (ইন্নালিল্লাহি… রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর।
বিষয়টি বাংলা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. আশীষ কুমার চক্রবর্তী । তিনি বলেন, ‘কয়েকদিন ধরেই তার অবস্থার অবনতি হচ্ছিল। দুর্ভাগ্যবশত আজ সকাল থেকে দুবার তার কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়। দুপুর ১২টা ৫ মিনিটে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়েছে।’

জানা যায়, শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে গেল ৬ সেপ্টেম্বর চলচ্চিত্রের অন্যতম এ অভিনেতাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পাশাপাশি ছিল করোনার উপসর্গও। ১১ সেপ্টেম্বর তার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে।সাদেক বাচ্চু পাঁচ দশকের দীর্ঘ অভিনয় ক্যারিয়ারে মঞ্চ, বেতার, টিভি ও সিনেমায় বিচরণ করেছেন। নব্বই দশকে এহতেশামের ‘চাঁদনী’ সিনেমায় অভিনয়ের পর জনপ্রিয়তা পান খলনায়ক হিসেবে। এই পরিচয়েই দেশজুড়ে খ্যাতি ছড়িয়ে পড়ে গুণী এই অভিনেতার। এছাড়াও বিভিন্ন চরিত্রে তিনি তার দক্ষতার প্রমাণ দিয়েছেন। সাদেক বাচ্চুর উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে, জোর করে ভালোবাসা হয় না (২০১৩), জজ ব্যারিস্টার পুলিশ কমিশনার (২০১৩), জীবন নদীর তীরে (২০১৩), তোমার মাঝে আমি (২০১৩), ঢাকা টু বোম্বে (২০১৩), ভালোবাসা জিন্দাবাদ (২০১৩), এক জবান (২০১০), আমার স্বপ্ন আমার সংসার (২০১০), মন বসে না পড়ার টেবিলে (২০০৯), বধূবরণ (২০০৮), ময়দান (২০০৭), আমার প্রাণের স্বামী (২০০৭), আনন্দ অশ্রু (১৯৯৭), প্রিয়জন (১৯৯৬), সুজন সখী (১৯৯৪)।
নায়ক আলমগীর পরিচালিত ‘একটি সিনেমার গল্প’ ছবিতে অভিনয়ের সুবাদে ২০১৮ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন সাদেক বাচ্চু।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.