Sylhet Express

মুসলিম-বিদ্বেষ ছড়াতে যেয়ে ধরা খেলেন বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং

0 ৭৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে দুর্গাপুজো নিয়ে ভুয়া সংবাদ ছড়ানো নিয়ে অনেক বিতর্ক হয়েছে। এবার সামনে প্রকাশ্যে এলো বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের আরেক কীর্তি। মুর্শিদাবাদের একটি মন্দিরের কালীমূর্তি পুড়ে যাওয়ার ঘটনায় সরাসরি মুসলিম সম্প্রদায়কে দায়ি করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়া সংবাদ ছড়ান তিনি। তবে, সেটি দুর্ঘটনা ছিল বলে জানিয়ে দিয়েছে মন্দির কমিটি।মুসলিম-বিদ্বেষ ছড়ানোর উদ্দেশ্যে ভুয়া সংবাদ দিয়ে নিজের টুইটারে অর্জুন লেখেন, ‘দিদির (মমতা বন্দোপধ্যায়) জিহাদি প্রকৃতি এবার হিন্দু ধর্ম ও সংস্কৃতিকে শেষ করে দেবে। দেখুন মুর্শিদাবাদে কীভাবে মন্দির ভাঙা হয়েছে, মা কালীর মূর্তি পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।’ সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টটি বহুল শেয়ারও হয়।

তবে, অর্জুন সিংয়ের ওই টুইটেই মুর্শিদাবাদ পুলিশের তরফে দাবিগুলোকে নস্যাৎ করে জানিয়ে দেয়া হয়, মন্দিরে যে আগুন লেগেছিল, তা সম্পূর্ণই দুর্ঘটনাবশত। এর নেপথ্যে কোনও মুসলিম বা অন্য কোনও সম্প্রদায়ের ভূমিকা নেই। আর সেই তথ্যের ক্ষেত্রে মন্দির কমিটির হাতে লেখা একটি চিঠিও পুলিশ সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে। পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘মন্দির কমিটি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছেন। স্থানীয় পুলিশ ও প্রশাসন মন্দির কমিটির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে। এই ধরনের ভুয়ো খবর যাচাই না করে শেয়ার করবেন না। আপনারা নিজেরাই চাইলে মন্দির কমিটির সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন।’

এ বিষয়ে মন্দির কমিটির সেক্রেটারির জানান, মন্দিরের ভিতরে থাকা প্রদীপ থেকেই এই দুর্ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। সেখানে কোনও সম্প্রদায়ের হাত নেই। পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের অফিসিয়াল হ্যান্ডেল থেকেও এই ট্যুইট করা হয়। সেখানে এই জাতীয় ভুয়া খবর যাতে না ছড়ানো হয়, তা নিয়ে সতর্কও করা হয়।
সূত্র: টিওআই

মন্তব্য
Loading...