Sylhet Express

দক্ষিণ সুরমায় ছিনতাইকৃত ল্যাপটপ ও মোবাইল উদ্ধার, গ্রেফতার ৩

0 ১৪১


সিলেটের দক্ষিণ সুরমা লিডিং ইউনিভার্সিটির এক শিক্ষকের ছিনতাইকৃত ল্যাপটপ ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ ৩জনকে গ্রেপ্তার করেছে। বুধবার (২৬ আগস্ট) গ্রেপ্তারকৃতরা ছীনতাইয়ের সাথে সম্পৃক্ত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দেয়। এর আদালত আসামীদের কারাগারে প্রেরণ করেন। এরআগে মঙ্গলবার (২৫ আগস্ট) রাতে পুলিশের একটি দল তাদের আটক করে।মঙ্গলবারই দক্ষিণ সুরমার শাহজালাল সেতুর কাছে ছিনতাইয়ের শিকার হন লিডিং ইউনিভার্সিটির প্রভাষক ফরহাদ হোসেন। ওইদিনই তিনি দক্ষিণ সুরমা থানায় এ ব্যাপারে মামলা করেন। ফরহাদ ঢাকার কদমতলী থানাধীন ১৫৩৯ দক্ষিণ দনিয়া এলাকার তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে। চাকরির সুবাধে তিনি বিমানবন্দর থানাধীন চৌকিদেখি এলাকার রংধনু ৮৮/২ নং বাসায় বসবাস করে আসছেন।

এ ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছেন- মোগলাবাজার থানাধীন সিলাম মাঝপাড়া এলাকার হোসেন মিয়ার ছেলে শুভ আহমদ আরিয়ান (২৩), সুনামগঞ্জ জেলার সদর থানার নতুনপাড়া এলাকার রাজেন্দ্র দাসের ছেলে জনি দাস (২০) ও সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর থানাধীন চেচনী এলাকার আলিফ মিয়ার ছেলে রাজু মিয়া (২৫)।বুধবার তাদের মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে তেঅরা হলে শুভ আহমদ আরিয়ান ও রাজু মিয়া দায় স্বীকার করেন। মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট ২য় আদালতের বিচারক সাইফুর রহমান তাদের জবানবন্দি গ্রহণ করেন বলে জানান দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি আখতার হোসেন।

তিনি জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ শুভকে বাবনা পয়েন্ট থেকে গ্রেপ্তার করে। এসময় তার কাছ থেকে ছিনতাইকৃত নকিয়া মোবাইল উদ্ধার করে। এরপর তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে কোতোয়ালি থানাধীন কানিশাইল এলাকার ময়না মিয়ার কলোনী থেকে তার সহযোগী জনি দাসকে গ্রেপ্তার করে। এসময় জনির কাছ থেকে প্রভাষকের এইচপি ল্যাপটপ উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর দক্ষিণ সুরমার কদমতলীর সাদ্দাম হোসেনের কলোনী থেকে পুলিশ রাজু মিয়াকে গ্রেপ্তার করে।জানা যায়, ঢাকা থেকে মঙ্গলবার ভোরে সিলেট আসেন প্রভাষক ফরহাদ হোসেন। এসময় তিনি রিকশা যোগে বাসায় ফিরছিলেন। তাকে বহনকারী রিকশা শাহজালাল ব্রিজের উপর আসামাত্রই ছিনতাইকারীরা তাকে ছুরিকাঘাত করে ১টি ল্যাপটপ, ৩টি মোবাইল সেট ও নগদ ৫হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

মন্তব্য
Loading...