সিলেটের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অফিস সহকারী যখন রাতারাতী চাঁরটি বাড়ীর মালিক…….!

0 ৪৩৯

নিজস্ব প্রতিবেদক:: উনার নাম নূর মোহাম্মদ মূল বাড়ি বরিশালে। একটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে চকরি নিয়ে ২০১০ সালের ১৫ই সেপ্টেম্বর তিনি সিলেটে আসেন। এর পর থেকে সিলেট জেলার বিভিন্ন হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে এখনো এই পদেই তিনি কর্মরত। বর্তমানে তার সরকারী বেতন স্কেল ১৮হাজার ৭শ ৪৫ টাকা। সামান্য এই বেতনে চাকুরি করে সিলেট নগরীতে অঢেল সম্পত্তির মালিক তিনি। নগরীর শামীমাবাদ এলাকায় বিলাসবহুল একটি বাড়িসহ মোট ৪টি বাড়ি রয়েছে তার । আলাদিনের চেরাগের মতোই আশ্চর্য প্রদীপের ছোয়ায় তিনি আজ বিশাল বিও বৈভবের মালিক। তিনি হচ্ছেন সিলেট সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতালের বর্তমান অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর নূর মোহাম্মদ। বাবা মোহাম্মদ মুসলিম খলিফা ছিলেন সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালের ওয়ার্ড বয়। সেই সুবাদেই তার সিলেট আগমন ও সরকারী চাকরি।

খালি হাতে সিলেটে আসা হাসপাতালের এই অফিস সহকারী নূর মোহাম্মদের অঢেল সহায়-সম্পত্তি ও গাড়ি-বাড়ির হিসেব নেওয়ার যেন কেউ নেই। দুদকসহ সরকারের বিভিন্ন সংস্থাও খোজ নিচ্ছে না তার।

অভিযোগ রয়েছে বিভিন্ন সরকারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও হাসপাতালের চিকিৎসা সামগ্রী-সহ ঔসধ পাচার এবং অনিয়ম-দুর্নীতির মাধ্যমেই অফিস সহকারী নূর মোহাম্মদ এ বিশাল বিত্ত-বৈভব গড়ে তুলেছেন শাহজালালের পুণ্যভ’মি সিলেটে। মাত্র ৭ বছরের ব্যবধানে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনে তার কাছে হার মেনেছেন সরকারের উচ্চপদস্থ ও উচ্চ বেতন-ভাতার অধিকারী অনেক কর্মকর্তা ও কর্মচারী। তাই অবাক সিলেটবাসী।

মন্তব্য
Loading...