৯৯৯ কল্যাণে মেজরটিলায় স্বর্ণালঙ্কারসহ ধরা পড়লো ৩ চোর

0 ১৫১

নিজস্ব প্রতিবেদক::    সিলেট নগরীর মেজরটিলাস্থ শ্যামলী আবাসিক এলাকার এক গৃহবধূ পুলিশের হেল্পলাইন ৯৯৯ নাম্বারে কল দিয়ে ফেরত পেয়েছেন ট্যাব, স্বর্ণালঙ্কার ও মোবাইল ফোনসহ লুট হওয়া জিনিসপত্র। এ ঘটনায় তিন চোরকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে মেজরটিলা শ্যামলী আবাসিক এলাকায় চুরির এ ঘটনা ঘটে।

শাহপরাণ থানা পুলিশ জানায়, বুধবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে শ্যামলী আবাসিক এলাকার ২ নম্বর রোডের ১৫ নম্বর বাসার আহসান হাবিবের পরিবারের সদস্যরা এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে যান। রাত সাড়ে ১০টায় তারা বাসায় ফিরে চুরির বিষয়টি টের পান। চুরির ঘটনাটি জানিয়ে আহসান হাবিবের স্ত্রী শাবাবা জান্নাত লামিয়া পুলিশের হেল্প লাইন ৯৯৯ নাম্বারে ফোন দিয়ে সহযোগিতা চান।

তিনি পুলিশকে জানান, চোরেরা তার বাসা থেকে ৩টি স্বর্ণের চেইন, ১টি স্বর্ণের নাকফুল, ১টি ডায়মন্ডের নাকফুল, স্বর্ণের একজোড়া কানের দুল, ২টি স্বর্ণের আংটি, ১টি ট্যাব, ২টি মোবাইল ফোন সেট, নগদ ৩০ হাজার টাকাসহ মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে গেছে। ওইরাত সাড়ে ১২টার দিকে মেজরটিলা বাজার এলাকা থেকে শাহপরাণ থানাধীন ইসলামপুর কলোনীর রুবেল নামের এক যুবককে আটক করে তার শরীর তল্লাশি করে চুরি হওয়া একটি মোবাইল ফোন সেট উদ্ধার করে।

পরে রুবেলের বাসা থেকে চুরি যাওয়া ১টি স্বর্ণের চেইন, ১টি নাকফুল, ১ জোড়া স্বর্ণের কানের দুল, ইমিটেশনের গহনা একসেট, ১টি ট্যাব উদ্ধার করে।

পরে রুবেলের দেয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ইসলামপুর আমিনবাগের আমিনুল ইসলাম অপু ও শ্যামলী আবাসিক এলাকার ১ নম্বর রোডের মাছুম আহমেদকে আটক করে। এ ঘটনায় ধৃত তিনজনসহ চারজনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন গৃহকর্তা আহসান হাবীব।

আটককৃতদের বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শাহপরাণ থানার ওসি আখতার হোসেন।

মন্তব্য
Loading...