ছাত্রলীগকে ‘চাঁদা না দেওয়ায়’ শাবির উন্নয়ন কাজ বন্ধ

0 ৯৪

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগকে চাঁদা না দেওয়ায় সবগুলো আবাসিক হলের ওয়াইফাই সংযোগ প্রকল্পের কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার এন্ড ইনফরমেশন সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক ড. জহিরুল ইসলাম এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, ঈদের ছুটিতে আবাসিক হল বন্ধ থাকাকালীন সময়ে ওয়াইফাইয়ের কাজ শুরু হয়। বন্ধের সময়ে কাজের বেশ অগ্রগতি হলেও ওয়াইফাইয়ের রাউটার লাগানোর কাজ বাকী থাকে।

ছুটি শেষে হল খোলার পর কাজ শুরু করতে গেলে ছাত্রলীগের নেতারা চাঁদা না দিলে কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দিলে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান হামিদা ট্রেডার্স কাজ বন্ধ রেখে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে তা জানায়।

শাহপরান হলের প্রভোস্ট শাহেদুল হোসাইন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রুহুল আমিন ও সহ-সভাপতি তরিকুল ইসলামের বাধায় কাজ বন্ধ রয়েছে। কম্পিউটার সেন্টার থেকেও এ ধরনের অভিযোগ এসেছে।

আর বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার অ্যান্ড ইনফরমেশন সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক জহিরুল ইসলাম বলেন, “কতিপয় ছাত্র এসে কোম্পানির শ্রমিকদের কাছে চাঁদা চেয়েছিল, তাদের থ্রেট করেছিল।

আমি তা প্রভোস্ট, প্রক্টর ও উপাচার্যকে জানিয়েছিলাম। তাদের বাধার মুখে এখন প্রকল্পের কাজ বন্ধ রয়েছে। এটা অপ্রত্যাশিত।

উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘ছাত্রলীগের নেতাদের চাঁদা না দেওয়ায় আবাসিক হলের কাজ বন্ধ আছে বলে আমি শুনেছি। আমি কথা বলেছি তাদের সঙ্গে; ছাত্রলীগের ছেলেরা বলছে, ওরা আর বাধা দিবে না।

আমি কথা বলেছি, ছাত্রলীগের ছেলেরা আমাকে বলেছে যে ওরা আর বাধা দিবে না। ঢাকায় জরুরী একটি মিটিংয়ে থাকায় কাজ শুরু হয়েছে কি না জানিনা।’

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রুহুল আমিন বলেন, “আমরা কাউকে কাজ বন্ধ রাখার জন্য হুমকি দেইনি। এসব ষড়যন্ত্র।”

তরিকুল ইসলাম বলেন, “হলে ওয়াইফাই সংযোগের দাবি আমাদের দীর্ঘদিনের। এ কাজে বাধা দেওয়ার প্রশ্নই আসে না।”

মন্তব্য
Loading...