সুনামগঞ্জের হাওরে ধান কাটতে গিয়ে বজ্রপাতে ৪জন নিহত,আহত ৪

0 ১২৬

সুনামগঞ্জের সদর উপজেলা,তাহিরপুর ও জামালগঞ্জ,বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় পৃথক পৃথক স্থানে হাওরে ধান কাটতে গিয়ে বজ্রপাতের আঘাতে ৪জন কৃষক নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরো ৪জন। মঙ্গলবার বেলা ১২টা থেকে ১টার মধ্যে ৩টি উপজেলায় নিজ নিজ এলাকার হাওরে ধান কাটতে গিয়ে বজ্রপাতের আঘাতে নিহত হয় ।

তারা হলেন,সদর উপজেলার মোল্লারপাড়া ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামের রশিদ (৪৫)। জামালগঞ্জ উপজেলা কমলা কান্ত তালুকদার (৫৫)। তিনি জামালগঞ্জ উপজেলার ফেনারবাঁক ইউনিয়নের খোজারগাঁও গ্রামের মৃত কৃষ্ণধন তালুকদারের ছেলে। একেই সময়ে একেই উপজেলার ভীমখালী ইউনিয়নের কলকতা গ্রামের মুক্তার আলীর ছেলে হিরণ মিয়া (৩০),বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার খরচার হাওরে ধান কাটার সময় ধনপুর ইউনিয়নের মৃত সাইদুর রহমানের ছেলে আলম মিয়া (৫০)। ঐ সময়ে বজ্রপাতে আহতরা হলেন,নবীন চন্দ্রউচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র সৈকত তালুকদার (১৫),তার সহোদর পিংকু তালুকদার (২৫) ও একই গ্রামের জ্ঞান তালুকদার (৪৫)।

অন্যদিকে জেলার তাহিরপুর উপজেলায় শনির হাওরে পাশ্বভর্তি ইউনিয়ন বাদাঘাট থেকে ধান কাটতে আসা শ্রমিক লিয়াকত মিয়া। তিনি বাদাঘাট ইউনিয়নের মানিগাঁও গ্রামের আব্দুল হাইয়ের ছেলে। বেলা বার টার সময় শনির হাওরে ধান কাটার সময় বজ্রপাতে আহত হন তিনি। সাথে সাথে তার সাথে থাকা সহযোগীরা তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় পরে থাকে হাসপাতালেই ভর্তি করা হয়। সুনামগঞ্জ,জামালগঞ্জ ও তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। সুনামগঞ্জ সদর থানার ওসি মোহাম্দ শহীদুল্লাহ,তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নন্দন কান্তি ধর ও জামালগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আবুল হাশেস,বিশ্বম্ভলপুর থানার ওসি মোল্লা মনির হোসেন বজ্রপাতে নিহত ও আহতের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মন্তব্য
Loading...