Sylhet Express

দক্ষিণ সুরমায় ৩০ বছরের পুরনো জাহাজ বিল্ডিং ভেঙ্গে ড্রেন নির্মাণ

0 ৫৭৩

সিলেট সিটি করপোরেশনের ২৫ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ সুরমার কায়েস্তরাইল এলাকায় রত্নারখাল ও জৈন্তারখালের দু’পাশ দখল করে নির্মিত জাহাজ বিল্ডিং অবেশেষে ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে।

পরে উদ্ধার হওয়া সরকারি ভূমিতে দক্ষিণ সুরমার বৃহৎ এলাকার পানি নিষ্কাশনের জন্যে বড় একটি ড্রেন নির্মাণ করা হবে বলে জানিয়েছেন ওয়ার্ড কাউন্সিলর তাকবির ইসলাম পিন্টু। আর ড্রেন নির্মানে ইতিমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে রত্নারখাল ও জৈন্তারখালের দখল হওয়া স্থানে ড্রেন নির্মাণ হলে জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পাবেন স্থানীয় লোকজন।

জানা যায়, দক্ষিণ সুরমার বারখলা, কায়েস্তরাইল ও মুছারগাঁও এলাকার ভিতর দিয়ে বয়ে গেছে রত্নারখাল ও জৈন্তারখাল। আর জাহাজ বিল্ডিং এর সামনে এসে ঐ দুটি খাল একত্রিত হয়েছে। ফলে এলাকার পানি নিষ্কাশনের কেবল পথই হলো ঐ স্থান দিয়ে।

কিন্তু সেই রত্নারখাল ও জৈন্তারখালের দু’পাশ দখল করে দীর্ঘ প্রায় ৩০ বছর পূর্বে নির্মাণ করা হয় জাহাজ বিল্ডিং। এলাকাবাসী কিংবা সিটি করপোরেশন সরকারি ভূমি উদ্ধারে কোন প্রকার উদ্যোগ নেন নি। বিগত সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে আরিফুল হক চৌধুরী বিপুল ভোটে বিজয়ী হওয়ার পর নগরীর জলাবদ্ধতা দুরীকরণে বিভিন্ন প্রদক্ষেপ গ্রহণ করে কাজ শুরু করেন।

এরই অংশ হিসেবে সকল প্রতিকুলতা দুর করে ২৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তাকবির ইসলাম পিন্টু সিসিক মেয়রের সহযোগীতায় প্রথমে শুরু করেন রত্নারখাল-জৈন্তারখাল খনন ও ড্রেন নির্মাণ এবং কালভার্ড নির্মাণের কাজ। সম্প্রতি বারখলা, কায়েস্তরাইল, দাউদপুর, মুছারগাঁও, গালিমপুর ও ছান্দাই এলাকাবাসীর যাতায়াতের রাস্তার উপর শুরু করেন কালভার্ড নির্মাণের কাজ।

এ সময় রত্নারখাল -জৈন্তারখালের দু’পাশ দখল করে নির্মিত জাহাজ বিল্ডিংটি ভাঙ্গার কাজ শুরু করেন। এরপর জাহাজ বিল্ডিং থেকে উদ্ধার হওয়া সরকারি ভূমিতে পানি নিষ্কাশনের জন্য ড্রেন নির্মাণ করা হবে। আর সেখানে বড় একটি ড্রেন নির্মাণ হলে পুরো এলাকা বর্ষা মৌসুমে জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পাবে। বর্তমানে উন্নয়ন কাজটি দ্রুত গতিতে চলছে।

এ ব্যাপারে ২৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তাকবির ইসলাম পিন্টু বলেন, নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে এলাকার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি। ২৫ নং ওয়ার্ডে অসংখ্য উন্নয়ন হয়েছে। বিশেষ করে জলাবদ্ধতা দুরীকরণে রত্নারখাল-জৈন্তারখাল খনন, ড্রেন ও কালভার্ড নির্মাণ করেছি ও বর্তমানে তা করছি। তাছাড়া ২৫ নং ওয়ার্ডকে মাদক ও অপরাধমুক্ত রেখেছি সাধ্যমত।

তিনি বলেন, সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সিসিকের প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমান, নির্বাহী প্রকৌশলী আলী আকবর উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করছেন ও সদা খুজখবর রাখছেন। এলাকাবাসীও উন্নয়ন কাজ পরিচালনা করতে সকল প্রকারে সহযোগীতা করে যাচ্ছেন।

মন্তব্য
Loading...